ই-পেপার

মেহেন্দিগঞ্জে ছেলের হাতে বন্দি বৃদ্ধা মাকে উদ্ধার করতে পারল না চেয়ারম্যান

হিজলা (বরিশাল) প্রতিবেদক | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার কাজিরহাট থানার অন্ধারমানিক ইউনিয়নে খাদিজা বেগম (৯৫) নামের ‍এক বৃদ্ধা মাকে গত ১৫ দিন ধরে গৃহবন্দি করে রেখেছেন তার ছেলে মকবুল ‍আহমেদ খাঁ।

ঘটনাটি জানতে পেরে গৃহবন্দি বৃদ্ধাকে ‍উদ্ধারে ছুটে যান স্থানীয় ‍ইউপি চেয়ারম্যান। কিন্তু ব্যর্থ হয়ে ফিরে ‍আসতে হয়েছে তাকে। গৃহবন্দি বৃদ্ধা ‍আন্ধারমানিক ‍ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ‍ইয়াসিন খানের স্ত্রী।

জানা গেছে, গত ২৯ ‍আগষ্ট থেকে বৃদ্ধা মাকে ঘরের মধ্যে ‍আটকে রেখেছেন ছেলে মকবুল খাঁ। তাকে বাইরে যেমন বের হতে দিচ্ছে না, তেমনি অন্যান্য সন্তান ‍এবং প্রতিবেশীদের সাথেও কথা বলা বা যোগাযোগ করতে দিচ্ছেন না তিনি।

তাই ‍এই ঘটনায় বৃদ্ধা মাকে ‍উদ্ধারের দাবি জানিয়ে অপর দুই ছেলে সেলিম খান ও আলী আহমেদ খান এবং মেয়ে ছকিনা বেগম কাজিরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

এদিকে বৃদ্ধাকে গৃহবন্দি রাখার খবর পেয়ে ছেলে মকবুলের বাড়িতে ছুটে যান ‍আন্ধারমানিক ‍ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী সহিদুল ‍ইসলাম, ১ নং ওয়ার্ডের ‍ইউপি সদস্য জামাল খান লিটন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ‍আবুল কালাম ‍আজাদ, দফাদার সহিদুল ‍ইসলাম ও গ্রাম পুলিশ খলিল রহমান। তারা দুই ঘন্টা বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে থাকলেও মকবুল ও তার পরিবারের সদস্যরা দরজা খোলেননি।

এ বিষয়ে আন্ধারমানিক ইউপি চেয়ারম্যান কাজী সহিদুল ইসলাম বলেন, বৃদ্ধাকে গৃহবন্দি করে রাখার সংবাদ পেয়ে তাকে ‍উদ্ধার করার জন্য ইউপি সদস্য সহ গ্রাম পুলিশ নিয়ে ওই বাড়িতে ছুটে যাই। কিন্তু আমি বার বার ডাক‍া সত্যেও পরিবারের কেউ দরজা খোলেনি। আমি দরজার সামনে প্রায় ২ ঘন্টা অপেক্ষা করে চলে ‍এসেছি।

বৃদ্ধা খাদিজার ছোট ছেলে সেলিম খান জানান, গত ২২ আগষ্ট তার মাকে চিকিৎসার কথা বলে ভাই মকবুল খাঁ বরিশাল নিয়ে যায় ‍এবং ২৯ আগষ্ট বাড়িতে নিয়ে আসে। পরোক্ষভাবে জানতে পারি আমার মায়ের ২ একর ১৬ শতাংশ জমি মকবুল খা‍ঁ সাব রেজিস্ট্রি অফিসের মাধ্যমে দলিল করে নিয়েছে।

এ ঘটনার সত্যতা জানার জন্য মায়ের সাথে আমরা যোগাযোগ করতে চাইলে তিনি তাকে ঘরের মধ্যে গৃহবন্দি করে রাখে। ‍এমনকি আমাদের কারোর সাথে দেখা করতে দিচ্ছে না।

এ বিষয়ে মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান লিটন বলেন, আমি বিষয়টি শুনেছি এবং স্থানীয় চেয়ারম্যানকে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করার জন্য বলেছি।

কাজিরহাট থানার অফিসার ‍ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ ব্যপারে পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন