ই-পেপার

কলাপাড়ায় বরশি দিয়ে সৌখিন শিকারিদের মাছ শিকার ‍উৎসব

এ.এম মিজানুর রহমান বুলেট, কলাপাড়া | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় দ্বিতীয দিনের মত চলছে বরশি দিয়ে সৌখিন মাছ ধরার উৎসব। বৃহস্পতিবার বিকাল তিনটায় পায়রা মৎস্য চাষ ও মৎস্য শিকারী সমবায় সমিতির আয়োজনে উপজেলার নীলগঞ্জ ইউপির ইসলামপুর মাষ্টার বাড়ি সংলগ্ন গোলমইয়া নামক খালে এ উৎসব শুরু হয়।

একটানা চলছে আজ শুক্রবার বিকাল তিনটা পর্যন্ত। দুইদিন ব্যাপী উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মো.শহীদুল হক। মাছ ধরার এ উৎসবে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রায় ৫ শতাধিক সৌখিন মৎস্য শিকারীরা অংশগ্রহন করেন। আর এ উৎসব এক নজর দেখতে ভীড় জমায় স্থানীয় হাজারো জনতা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উৎসবমুখর পরিবেশে হাজার মৎস্য শিকারী এবং দূর দূরান্ত থেকে আসা উৎসুক জনতার উপস্থিতিতে খালের দুই পাড়ে ছিল আনন্দের জোয়ার। সাতাশ একর জায়গার বিস্তৃত খালের দুই পাড়ে ৭৮টি সিট নির্ধারণ করা হয়। এবং আগেভাগে বুকিং পাওয়া ৭৮ দলের মধ্যে লটারির মাধ্যমে স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে।

বরিশাল থেকে আসা ৫ নম্বর সিটের মৎস্য শিকারী শরীফুল হক, অনেক আগ্রহ নিয়ে এখানে এসেছি। ভালো মাছ পেয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছি। তিনি আরও জানান, আমার বরশিতে আট কেজি ওজনের রুই মাছ শিকার করেছি।

পায়রা মৎস্য চাষ ও মৎস্য শিকারী সমিতির সহ-সভাপতি বুলেট আকন জানান, এই খালে প্রায় দুই বছর যাবৎ আমরা মাছ চাষ করে আসছি। ধারণা করা হচ্ছে এই খালে ২০ কেজি পর্যন্ত ওজনের মাছ আছে। বরশি পেতে ইতিমধ্যে অনেকেই বড় বড় মাছ পেয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মো.শহীদুল হক জানান, সৌখিন মাছ ধরার উৎসব বাংলাদেশের একটি ঐতিয্যবাহী কালচার। বিভিন্ন জেলা থেকে মাছ শিকারীরা এখানে আসায় আনন্দমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি আয়োজক সহ উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন