বৃহস্পতিবার, মার্চ ৪, ২০২১

ই-পেপার

আজ ঋতুরাজ ‘বসন্ত’

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

কবি সুভাস মুখোপাধ্যায় লিখেছেন- ‘ফুল ফুটুক আর না ফুটুক/আজ বসন্ত।’ বসন্তই যদি হবে, ফুল ফুটবে না কেন? ফুল ফোটার প্রতিশ্রুতি নিয়েই তো বসন্ত আসে। আর দখিনা হাওয়া জানান দিচ্ছে ঋতুরাজ বসন্ত এসেছে। শীতের বিদায় জানিয়ে আগামীকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে বসন্ত। আর বসন্তের দিনেই পালিত হবে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।

মহামারি করোনার মধ্যেও বসন্ত আর ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে লাল ও হলুদিয়াসহ নানান রঙের ফুলে সেজেছে নগরীর ফুল বিক্রির দোকানগুলো। বসন্ত বরণে প্রিয়জনকে শুভেচ্ছা জানাতে শুক্রবার রাত থেকেই ফুলের দোকানগুলো আগাম প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে।

করোনা মহামারিতে ফুল ব্যবসায়ীদের হওয়া লোকসান কাটিয়ে উঠতে বসন্ত এবং ভালোবাসা দিবসকে আশীর্বাদ হিসেবে দেখছেন বরিশাল নগরীর ফুল ব্যবসায়ীরা। তবে পূর্বের ন্যায় বসন্ত এবং ভালোবাসা দিবস পৃথক দিনে হলে ব্যবসায়ীরা আরেকটু লাভবান হতে পারতেন বলে মনে করছেন তারা। আবার বছরের এমন দিনে জিম্মি করে ফুলের বাড়তি দাম আদায় করাটা অযৌক্তিক বলে মনে করছেন ক্রেতারা।

পুরানো বাংলা বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বসন্তের প্রথম দিন অর্থাৎ পহেলা ফাল্গুন ছিল ১৩ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু বাংলা বর্ষপঞ্জি সংশোধনের পর এক দিন পিছিয়েছে বসন্ত। বাংলা একাডেমির গবেষণা, সংকলন এবং অভিধান ও বিশ্বকোষ বিভাগ জানিয়েছে, সংশোধিত বর্ষপঞ্জিতে বৈশাখ থেকে আশ্বিন পর্যন্ত প্রথম ছয় মাস ৩১ দিন, কার্তিক থেকে মাঘ মাস ৩০ দিন এবং ফাল্গুন মাস ২৯ দিন ধরে গণনা করা হবে। তবে গ্রেগরীয় পঞ্জিকার অধিবর্ষে (লিপ ইয়ার) ফাল্গুন মাস ২৯ দিনের পরিবর্তে ৩০ দিন গণনা করা হবে।

এদিকে, ‘খোঁজ খবর নিয়ে জানাগেছে, ‘প্রতি বছর বসন্ত বরণে নগরীর বিভিন্ন কলেজে নানা আয়োজন করা হয়। বাসন্তি রঙয়ের শাড়ি এবং খোপায় ফুল গেঁথে রমনীরা ঘুরে বেড়ান পথে প্রান্তরে। উৎসব-উদ্দীপনা আর নানা অনুষ্ঠানে কেটে যায় বসন্তের প্রথম দিন।

তবে এবার করোনা ভাইরাসের কারণে বসন্ত বরণের আনুষ্ঠানিকতার প্রস্তুতি তেমন একটা দেখা যায়নি। আবার মহামারির কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তাই কলেজ গুলোতেও এবার বসন্ত বরণ অনুষ্ঠান হচ্ছে না। সীমিত পরিবেশে বসন্ত বরণের আয়োজন করেছে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন।

সরকারি মহিলা কলেজের বকুল তলায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারও সীমিতভাবে বসন্ত বরণ করা হবে। সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজেও রয়েছে বসন্ত বরণের আয়োজন। বসন্তের বিকালে উদীচী’র আয়োজনে জগদীস সারস্বত স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে প্রতি বছর বসন্ত বরণ অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। তবে এবারের আয়োজনের বিষয়ে কোন তথ্য জানা যায়নি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন