বুধবার, ডিসেম্বর ২, ২০২০

গলায় বঙ্গবন্ধু ও ক্রোসফায়ারে নিহত বাবার ছবি ঝুলিয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন জুলহাস

বিএসএল নিউজ ডেস্ক | আপডেট: নভেম্বর ২১, ২০২০

শার্ট-প্যান্ট ও টাই পরিহিত চল্লিশোর্ধ্ব জুলহাসের গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি গ্রামে।গলায় বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত মুজিব বর্ষের কার্ড ঝুলিয়ে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ১ ও ২ নং গেইটের মধ্যবর্তি ফুটপাতে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন তিনি।

ঝালমুড়ির বস্তার একপাশে রয়েছে পুষ্প মাল্য পরিহিত বঙ্গবন্ধুর ছবি আরেক পাশে রয়েছে কথিত ক্রসফায়ারে মারা যাওয়া পিতার মুক্তিযুদ্ধের সনদ। গেজেট নং-২৭৮,মুক্তিবার্তা নং (লাল বই) ০১১২০৩০০২৮।

১/১১ এর আমলে ক্রসফায়ারের নামে পরিকল্পিতভাবে মুক্তিযোদ্ধা পিতা আলিম হাওলাদার ও ভাই ফরহাদ হাওলাদারকে সর্বহারা দলে সম্পৃক্ত থাকার গুজবে জড়িয়ে ফজরের নামাজ আদায় করার সময় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ধরে নিয়ে এলাকার ইব্রাহিম মিয়ার কলা বাগানে কতিথ ক্রসফায়ারে তাদের হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ জুলহাসের।

৫ ভাই বোনের মধ্যে জুলহাস ২য়। ১১ বছর ধরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন তিনি।বাবার স্মৃতিচারণ করে বলেন, আমার বাবা মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে যে ডিসেম্বরে বিজয়ের হাসি হেসেছিলেন ঠিক সেই বিজয়ের মাস ডিসেম্বরেই আমার বাবাকে হত্যা করা হয়।পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা গুজব ছড়ায়।

আর এ গুজবের প্রেক্ষিতেই ২৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে ক্রস ফায়ারের নাটক সাজিয়ে নৃশংসভাবে একই পরিবারের ২ জনকে হত্যা করা হয়।আমরা এর বিচার না পেলেও দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাওয়ায় আমরা সন্তুষ্ট।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন