মুজিববর্ষেই ববিতে যাত্রা শুরু করবে ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’, উৎফুল্ল সংশ্লিষ্টরা

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:২৩

শফিক মুন্সি :
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস-বিএসএল নিউজ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জীবন ও কর্মের ওপর গবেষণা এবং চর্চা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) একটি বিশেষ সেল প্রবর্তনের উদ্যোগ নেয়া হয় গত রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর)।বিশেষ এ সেলটি ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ নামে পরিচিত হবে বলে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।চলতি মুজিববর্ষেই এই সেলের কার্যক্রম শুরু হবে বলে নিশ্চিত করেছে সেখানকার উপাচার্য। আর এমন উদ্যোগে উৎফুল্ল প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ সংশ্লিষ্ট সকলে।

তবে এমন একটি উদ্যোগ অনেক আগেই গ্রহণ করা দরকার ছিল বলে মনে করেন প্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য ড.মোঃ ছাদেকুল আরেফিন। চলতি বছরেই এই সেলের কার্যক্রম শুরু হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও রাজনৈতিক দর্শন নিয়ে আন্তর্জাতিক মানের গবেষণা ও একাডেমিক কার্যক্রম এগিয়ে নিতেই এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। যা যথাযথ নীতিমালা ও কর্মপদ্ধতি ঠিক করার মাধ্যমে চলতি বছরেই যাত্রা শুরু করবে’।

তিনি আরো বলেন, ‘ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার মূলে রয়েছে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে তাঁর জীবদ্দশায় তিনি ঘোষণা করেছিলেন ঢাকার পরে দেশের অন্য কোথাও যদি সরকারি কোন বিশ্ববিদ্যালয় হয় সেটা হবে বরিশালে। পরবর্তীতে জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণাঞ্চলে শিক্ষা বিস্তারে বরিশালে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেন। প্রতিষ্ঠার দশ বছরেও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এখানে আলাদা একটি গবেষণা কেন্দ্র না হবার বিষয়টি দুঃখজনক ‘।

এদিকে এতদিন পরে হলেও প্রতিষ্ঠানটিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিশেষ এই সেল প্রবর্তনের উদ্যোগ নেয়ায় উপাচার্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তা পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সেখানকার শিক্ষক সমিতির সভাপতি আরিফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ খোরশেদ আলম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উপাচার্যকে ধন্যবাদ জানায় সেখানকার শিক্ষক সমাজ।বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি বিশ্বাস করে ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণার যে দ্বার উন্মোচিত হলো তা আমাদের ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করবে এবং নতুন প্রজন্মের ইতিহাসবোধকে জাগ্রত করবে।

সেখানকার কর্মকর্তা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সেরনিয়াবাত বলেন, ‘ বঙ্গবন্ধুর চেতনা ও আদর্শ আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস। বর্তমান উপাচার্য মহোদয়ের উদ্যোগে গঠিত হতে যাওয়া ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত সময়োপযোগী ও প্রশংসনীয়’।

এছাড়া সেখানকার কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের (গ্রেড ১৭-২০) সভাপতি হাসানুজ্জামান বলেন, ‘ বর্তমান উপাচার্য মহোদয়ের চিন্তা প্রসূত এমন উদ্যোগকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্মচারীরা সাধুবাদ জানিয়েছে। ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ প্রতিষ্ঠার সকল কার্যক্রম যেন দ্রুত ও নির্বিঘ্নে হয় আমরা সেই প্রত্যাশা করি’।

সারা বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর গবেষণা ও চর্চা বৃদ্ধিতে প্রতিষ্ঠানটির বিশেষ এই সেলটি ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সেখানকার শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা আশরাফুল কবির ইমন বলেন, ‘ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ত্যাগ ও স্বদেশ প্রেম সম্পর্কে সারাবিশ্বের মানুষকে জানাতে বিশেষ এই সেলটি কার্যকর হবে’।বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এমন উদ্যোগ সকল শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে আরো ঘনিষ্ঠভাবে জানার সুযোগ করে দেবে বলেও ধারণা তার। ##