কাঁচা মরিচের কেজি ২ শ‘ টাকা : প্রতিদিনই বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম

১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩:৫২

নিজস্ব প্রতিবেদক

যতই দিন যাচ্ছে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েই চলছে। কাঁচা মরিচের কেজি ২ শত টাকায় ঠেকেছে। ডিম প্রতি হালি ফার্মের ৩৮ টাকা, দেশি হাঁস-মুরগীর ডিম ৫০ টাকা হালি দরে বিক্রি হচ্ছে। একইভাবে বাজারে শাক সবজির দামও বেড়েই চলছে। বন্যার কারণে জিনিসপত্রের দাম বেড়ে গেছে বলে ব্যবসায়ীরা জানান।

গতকাল নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেয়া গেছে, গত সপ্তাহে যে দাম ছিলো এ সপ্তাহে তার থেকে ৩ থেকে ৫ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে পণ্যদ্রব্য। তবে পেঁপের দাম গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা, গতকাল বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা করে। করলা বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা প্রতি কেজি, গত সপ্তাহে একই দাম ছিলো। গত সপ্তাহে ঢেরস বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকা করে, গতকাল প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে ৫০ টাকা করে। কাঁচা কলা ২০ টাকা হালি দরে বিক্রি হয়েছে। পুঁইশাক ৩০ থেকে ৪০ টাকা, লালশাক প্রতি আটি ২০ টাকা, পাট শাক, কলমী শাক প্রতি আটি বিক্রি হয়েছে ১০ টাকা করে। রেখা বিক্রি হয়েছে ৩০-৩৫ টাকায়।

মাছের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, তেলাপিয়া বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১ শত ৩০ টাকা দরে, পাঙ্গাস ১ শত ২০ টাকা, কাতল-রুই বিক্রি হয়েছে ২ শত ৫০ টাকা থেকে ৩ শত টাকার মধ্যে। কই মাছ বিক্রি হয়েছে ১ শত ২০ টাকা করে। ইলিশ বিক্রি হয়েছে ছোট হাফ কেজি ৫ শত থেকে ৬ শত টাকার মধ্যে, ১ কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছে ১৩ শত থেকে ১৫ শত টাকার মধ্যে।

গত সপ্তাহে এ দামেই বিক্রি হয়েছে মাছ। এ ছাড়া বাজারে বিভিন্ন ধরনের প্রচুর মাছ রয়েছে। মাংসের দাম একই রয়েছে- গরু বিক্রি হয়েছে ৫ শত ৮০ থেকে ৬শত টাকায়। গরুর কলিজা বিক্রি হয়েছে ৫ শত ৮০ টাকা করে। ভুরি বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ২ শত টাকা করে। ব্রয়লার মুরগী বিক্রি হয়েছে ১ শত ২০ টাকা করে প্রতি কেজি, সোনালী বিক্রি হয়েছে ২ শত ২০ টাকা করে, লেয়ার বিক্রি হয়েছে ২ শত ৫০ টাকা করে।

গত সপ্তাহে যে দাম ছিলো এ সপ্তাহে ওই একই দামে বিক্রি হয়েছে। কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, বন্যার কারণে শাক সবজির দাম বেড়ে গেছে। কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ২ শত টাকা করে। গ্রামাঞ্চলে পানি বেড়ে যাওয়ায় কাঁচা মরিচের দাম বেড়ে গেছে বলে জানান তারা।