বরিশালবাসীর প্রতি স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঈদ উদযাপনের আহবান জনপ্রতিনিধিদের

নিজস্ব প্রতিবেদক শুক্রবার, জুলাই ৩১, ২০২০ ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

করোনা ভাইরাসের প্রকোপে এবছর রং হারিয়েছে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎসব ঈদুল আযহা (কোরবানি)। তবে ফিকে হওয়া রং যেন করোনা আক্রান্তের ভয়াবহতায় আরো মলিন না হয়ে যায় সেজন্য বরিশালবাসীর প্রতি বিভিন্ন পরামর্শ, আহবান ও অনুরোধ রেখেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। তাদের কেউ সবাইকে নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানির আহবান জানিয়েছেন, কেউবা বলেছেন দূরে থেকেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কাছে থাকার কথা। কেউ কেউ পরামর্শ দিয়েছেন করোনা প্রতিরোধী নিরাপত্তা সামগ্রীর যথাযথ ব্যবহার করার আবার কেউ জানিয়েছেন করোনায় আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া পরিচিত জনদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান। তবে সবাই চেয়েছেন নিজ নিজ এলাকার মানুষদের সঙ্গে সঙ্গে পৃথিবীর সকল মানুষই যেন করোনা ভয়াবহতা থেকে দ্রুত রক্ষা পায়।

বরিশাল -৩ আসনের সাংসদ গোলাম কিবরিয়া টিপু এবারের ঈদ উদযাপনে সবাইকে নিজেদের আশেপাশের মানুষ এবং প্রতিবেশীদের খোঁজ খবর রাখার আহবান জানান। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে সবাই বিভিন্ন মাত্রায় আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। সবার পক্ষে এবার হয়তো ঈদ উদযাপন বিগত দিনের মতো রঙিন হবে না। তাই আমাদের সবারই উচিত আশেপাশের পরিচিত – অপরিচিত সকলের খোঁজ খবর রাখা এবং ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়া’। তিনি আরো উল্লেখ করেন, বর্তমান সময়ে করোনা মুক্তভাবে বেঁচে থাকাটাই সবচেয়ে মুখ্য। তাই নিজেদের সুরক্ষার জন্য হলেও যেন সবাই স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে ভিড়ভাট্টা এড়িয়ে চলেন সেদিকে খেয়াল রাখা উচিত।

বরিশাল- ৬ আসনের সাংসদ নাসরিন জাহান রতœা জানান, বৈশ্বিক মহামারী করোনা পরিস্থিতি সকলের জীবনেই ছন্দপতন ঘটিয়েছে। তবু যেহেতু জীবন থেমে থাকবে না তাই প্রতিবারের ন্যায় সকল মুসলমানের কাছে ঈদুল আযহা উৎসব হিসেবেই আসবে। তবে এবারের উৎসব পালনে সকলকেই করোনা ভাইরাসের হাত থেকে মুক্ত থাকতে যে যে স্বাস্থ্য বিধি সরকার নির্ধারিত করে দিয়েছে সেগুলো পালন করতে হবে।

জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ ও বরিশালের সন্তান রুবিনা আক্তার মিরা ঈদের উৎসব পালনেও সবাইকে মাস্ক পরার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন,‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে করোনা সংক্রমণ রুখতে সবাইকে মাস্ক ব্যবহারের আহবান জানানো হয়েছে। এই ঈদে যারা বিভিন্ন দায়িত্বে থাকবেন কিংবা সামাজিক দূরত্ব মেনে ঘোরাঘুরি করবেন সবাই যেন মাস্ক ব্যবহার করেন সে অনুরোধ জানাচ্ছি আমি। সবাই সচেতন থাকলে এই বৈশ্বিক বিপর্যয় থেকে আমরা নিজেদেরকে নিরাপদ রাখতে পারবো’।

বরিশাল সদর উপজেলার চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু এবারের ঈদ উদযাপনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে উৎসাহী করেন সবাইকে। তিনি বলেন,‘স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে করোনা জীবাণুর হাত থেকে রক্ষা পেতে পারলে সামনে আরো অনেক ঈদ সবাই মিলে উদযাপনের সুযোগ পাবো আমরা। তাই এবারের ঈদে বাইরে খুব বেশি ঘোরাঘুরি না করে ঘরে থেকেই নিজ পরিবারের সঙ্গে এবং দূরে অবস্থানরত আপনজনদের সাথে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেওয়াই উত্তম’।

আর করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমাতে এবং নগরকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটু ও রফিকুল ইসলাম খোকন তাদের নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানির আহবান জানিয়েছেন নগরবাসীর প্রতি। তারা জানান, করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে নগরীর ত্রিশটি ওয়ার্ডে ১৪২ টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে পশু কোরবানির জন্য। এসব স্থানে পশু কোরবানি করলে নির্দিষ্ট সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে কোরবানিকৃত পশুর বর্জ্য অপসারণ করবেন সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। এতে করে করোনা জীবাণু সংক্রমণের হার বৃদ্ধি না পাবার সাথে সাথে নগরীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা যাবে।