বুধবার, ডিসেম্বর ২, ২০২০

হিজলায় মধ্যযুগীয় কায়দায় যুবককে হাত পা বেঁধে মাটি চাপা (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

বরিশালের হিজলা উপজেলায় রায়হান বাবুর্চি (২৫) নামের এক যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের পরে হাত-পা বেঁধে মাটি চাপা দিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনার পরের দিন সকালে স্থানীয়রা জীবিত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা অনেকটা আশঙ্কাজনক।

উপজেলার মেমানিয়া ইউনিয়নের ডিক্রিরচর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নির্মম নির্যাতনের শিকার ওই যুবক ডিক্রির চর গ্রামের আব্দুল কাদের বাবুর্চির ছেলে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ এবং উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

নির্যাতনের শিকার যুবক জানান, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টার দিকে রায়হান ছয়গাও বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে একটি ব্রিজের কাছে গেলে ৮-১০ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী তার পথরোধ করে গলায় ছুরি ধরে হাত পা-বেধে র্নিজন জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে নির্মামভাবে নির্যাতনের পরে মুখে কাপড় বেঁধে হত্যার উদ্দেশ্যে মাটি খুড়ে বস্তায় ভরে গর্তে ফেলে মাটি চাপা দিয়ে রাখে।

এদিকে ঘটনার পর দিন সকাল ৭টার দিকে একই গ্রামের আশরাফ বাঘা গরু নিয়ে ওই স্থান থেকে যাওয়ার পথে মানুষের গোঙ্গানীর শব্দ পেয়ে কাছে যান। তিনি সেখানে বস্তার মধ্যে শব্দ পেয়ে ডাক-চিৎকার শুরু করেন।

তখন স্থানীয়রা ছুটে এসে বস্তার মধ্যে মানুষ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে হিজলা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে হিজলা থানার এসআই ফারুকসহ পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌছে যুবক রায়হানকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে।

রায়হানের বরাত দিয়ে এসআই ফারুক জানান, ‘ঘটনার সময় ৮-১০ জন থাকলেও সবাইকে তিনি তিনতে পারেনি। তবে দু’জনকে চিনতে পেরেছেন। সে হল রায়হানের শ্বশুর ও স্ত্রীর বড় ভাই সুমন।

তিনি বলেন, রায়হানকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। যতটুকু ধারনা করা যাচ্ছে তাতে শ্বশুর বাড়ির লোকজন পারিবারিক কলোহের জের ধরে এই ঘটনা ঘটাতে পারে। তবে এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা বা লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। মামলা হলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এদিকে হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, ‘খবর পেয়ে তিনি হাসপাতালে রায়হানকে দেখতে গিয়েছেন। তার চিকিৎসার বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়েছেন। পাশাপাশি এই ঘটনায় যুবকের পরিবারকে থানায় মামলা করার পরামর্শ দিয়েছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন