বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের ২৮টি ওয়ার্ডের কমিটি ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক বুধবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৯ ২:০২ পূর্বাহ্ণ

বরিশাল মহানগর ১৮টি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) রাতে মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক কাজী মুনির উদ্দিন তারিক স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিন বছর মেয়াদী এ কমিটি ঘোষণা হয়।

এর আগে আরও দুই ধাপে আরও ১০টি ওয়ার্ডের কমিটি ঘোষণা করা হয়। আর মঙ্গলবার রাতে ঘোষণা হওয়া ১৮টি কমিটি নিয়ে মোট ২৮টি ওয়ার্ডের কমিটি ঘোষণা হলো। সে হিসেবে এখনো দুটি ওয়ার্ডের কমিটি ঘোষণা বাকি রয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে ঘোষণা হওয়া ওই কমিটিতে ৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মজিবর রহমান মৃধাকে সভাপতি ও হাজী জাহাঙ্গীর হোসাইনকে সাধারণ সম্পাদক, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মো. জনি হোসেনকে সভাপতি ও ফাহিম হাসনাইন খান অর্ককে সাধারণ সম্পাদক, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে মো. সাইফুল আহমেদকে সভাপতি ও শেখর চন্দ্র দাসকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

১১ নম্বর ওয়ার্ডে মো. বজলুর রহমানকে সভাপতি ও আতিকুর রহমান মুন্নাকে সাধারণ সম্পাদক, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে একেএম মোস্তফা সেলিমকে সভাপতি ও শেখ মিজানুর রহমান দিপুকে সাধারণ সম্পাদক, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. হুমায়ুন কবিরকে সভাপতি ও সরদার হাসান আহমেদ হীরাকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

১৪ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর তৌহিদুর রহমান সাবিদকে সভাপতি ও মো. শাকিল হোসেন পলাশকে সাধারণ সম্পাদক, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ রিয়াজ উদ্দিন কবিরকে সভাপতি ও সাইদুর রহমান সোহেলকে সাধারণ সম্পাদক, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে খন্দকার রেজাউর রহমান রেজাকে সভাপতি ও সঞ্জীব কুমার রায় পিংকুকে সাধারণ সম্পাদক, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ মাসুদ করিমকে সভাপতি ও সাঈদ মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

২০ নম্বর ওয়ার্ডে মোস্তফা কামালকে সভাপতি ও রাকিবুল হক রনিকে সাধারণ সম্পাদক, ২১ নম্বর ওয়ার্ডের মো. রুস্তম আলী হাওলাদারকে সভাপতি ও আবু জাফর সিকদারকে সাধারণ সম্পাদক, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মঞ্জুর মোর্শেদ মঞ্জুকে সভাপতি ও এইচ এম হাফিজুর রশিদ শিবলীকে সাধারণ সম্পাদক এবং ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মনিরুল ইসলামকে সভাপতি ও এমরান চৌধুরী জামালকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছে।

এছাড়া ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে মো. নাজমুল হুদাকে সভাপতি ও মো. সাফিন মাহমুদ তারিককে সাধারণ সম্পাদক, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে মো. সিদ্দিকুর রহমান মাসুমকে সভাপতি ও মীর শহিদুল ইসলাম রনিকে সাধারণ সম্পাদক, ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে মো. হুমায়ুন হাওলাদারকে সভাপতি ও মো. সোলায়মান হাওলাদার বাপ্পীকে সাধারণ সম্পাদক, এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আব্দুল আলীম বাবুলকে সভাপতি ও মো. শফিকুল আলম বাবু সরদারকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়েছে।

এর পূর্বে তিন দফায় মহানগরের আরও ১০টি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষনা করা হয়। এর মধ্যে ২৯ অক্টোবর ঘোষনা হওয়া চার ওয়ার্ডের কমিটির ১ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল বাসার সুমনকে সভাপতি ও মো. রাশেদ খান মেননকে সাধারণ সম্পাদক, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে এ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন আহমেদ খানকে সভাপতি ও মো. ইমরান মোল্লাকে সাধারণ সম্পাদক, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে মেজবাহুল বারী নওরোজকে সভাপতি ও মো. জগলুল মোর্শেদ প্রিন্সকে সাধারণ সম্পাদক এবং ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে গোলাম মোস্তফাকে সভাপতি ও মো. রুম্মান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

১২ নভেম্বর ঘোষনা করা হয় ৪, ৫, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কমিটি। এ কমিটিতে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মজিবুর রহমান পনুকে সভাপতি ও মুরাদ হোসেন রিন্টুকে সাধারণ সম্পাদক, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মো. চান মিয়াকে সভাপতি ও মোহাম্মদ আলী হাওলাদারকে সাধারণ সম্পাদক, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে মো. জাহাঙ্গীর হোসেনকে সভাপতি ও লিটন ঘোষকে সাধারণ সম্পাদক এবং ৭ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল ফারুক হুমায়ুনকে সভাপতি ও মো. আসলামকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

১৭ নভেম্বর রাতে ঘোষনা করা হয় ১৮ ও ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কমিটি। এর মধ্যে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে মো. কামরুজ্জামান সোনা মিয়াকে সভাপতি এবং সৈয়দ বশির আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত কমিটিতে সিনিয়র সদস্য হিসেবে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালের নাম ঘোষণা করা হয়।

তাছাড়া মনির উদ্দীন আহম্মেদ রুবেলকে সভাপতি, মো. মজিবুর রহমান বাচ্চুকে সাধারণ সম্পাদক ও শুভ সেনকে সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক করে গঠিত ১৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কমিটির সিনিয়র সদস্য হিসেবে ঘোষনা করা হয় মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ’র নাম।

এর আগে আগামী ৭ ডিসেম্বর মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রস্তুাতির অংশ হিসেবে গত ২০ অক্টোবর থেকে মহানগর আওয়ামী লীগের অধিনস্ত ৩০টি ওয়ার্ডে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়। যা শেষ হয়েছে গত ১৫ নভেম্বর।

আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিটি ওয়ার্ডের সম্মেলন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। তবে কাউন্সিলে গোপন ভোট না হলেও সকলের কণ্ঠ ভোটে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়। কোন কোন ওয়ার্ডে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ও সদস্য নির্বাচিত হয়।

প্রতিটি সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালা। প্রধান অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। এছাড়া প্রধান বক্তা ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর হোসেন।

তালিকা দেখতে ক্লিক করুন