প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের গণতন্ত্র ও উন্নয়নের জননী… সাদিক আবদুল্লাহ্

নিজস্ব প্রতিবেদক শনিবার, জুলাই ২৭, ২০১৯ ৯:০৪ অপরাহ্ণ

বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেছেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের গণতন্ত্র আর উন্নয়নের জননী। তার এ উন্নয়নমূলক কাজগুলো নিজেদের মধ্যে সিমাবদ্ধ রাখলে হবে না। উন্নয়নের কথা তুণমুলের মানুষের কাছে পৌছে দিতে হবে। এ কাজটি আমাদের দলের প্রতিটি নেতা-কর্মীকেই করতে হবে।

শনিবার (২৭ জুলাই) বিকালে নগরীর সদর রোডস্থ অশ্বিনী কুমার টাউন হলে বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও রজত জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ এসব কথা বলেন।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আজিজুর রহমান শাহীন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর, সিনিয়র সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট আফজালুল করীম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল আলম মনির, মহানগরের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মোয়াজ্জেম হোসেন ফিরোজ।

প্রধান অতিথি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ আরো বলেন, এই নগরী আমার একার নয়, এটা আমার, আপনার সবার। আমার প্রতি মানুষের যে ভালোবাসার সৃষ্টি হয়েছে তা কখনই নষ্ট হতে দেব না। আমি বা আমার পরিবারকে এই নগরীতেই থাকতে হবে। তাই নগরবাসির একজন সেবক হিসেবে নগরীর উন্নয়নে বাধাগ্রস্থ এবং ক্ষতি হয় এমন কাজ কাউকে করতে দিব না।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, আমি জানি আমার দলের অনেক নেতা-কর্মীই আমার উপর ক্ষুব্ধ। তারা হয়তো ভাবছেন এ কাকে মেয়র বানালাম। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, আপনারা ধৈর্য্য ধরুন। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে এত কাজ হবে যা আমি নিজে করবো। এগুলো আপনাদেরই করতে হবে। আপনাদের কাঙ্খিত আশা পুরুন হবে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- স্বেচ্ছাসেবক লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের সভাপতি মজিবর রহমান খোকা, ডা. শামীম, ফিরোজ রসিদ, মামুন ও টিটু হালদার। এসময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন-বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়ার গাজী নঈমুল হোসেন লিটু ও প্যানেল মেয়র এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসরাম খোকন প্রমুখ। এছাড়াও

এর আগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও আলোচনা সভা উপলক্ষ্যে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে খন্ড মিছিল বের করা হয়। ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি-সম্পাদকদের নেতৃত্বে বের হওয়া মিছিলগুলো টাউন হলের সামনে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বেলুন- ফেস্টুন উড়িয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।