বাবুগঞ্জের সুপার ব্রিকস নিয়ে ৫ কোটি টাকার মানহানি মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আটকে রেখে হয়রানী এবং ব্যবসায়ীক ক্ষতির অভিযোগ এনে ভাই-বোনের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরনের দাবী করে মানহানি মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) বরিশাল সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম সৈয়দ কাওসার হোসেনের ছেলে সৈয়দ জুলফিকার হোসেন ভুট্টু বাদী হয়ে ১ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন ।

মামলায় তিনি তার আপন ভাই সৈয়দ মেহেদী হাসান ও বোন আজরিন জামানকে বিবাদী করেছেন। মামলার আরজীতে বাদী জুলফিকার বলেন, বাবুগঞ্জ প্রতাবপুর এলাকায় ২ একর ভুমিতে মেসার্স সুপার ব্রিকস নামে তার বাবার স্থাপিত একটি ব্রিকস ফিল্ড আছে। ২০১৪ সালের ২৬ এপ্রিল তার বাবার সাথে ১০ বছরের ২০২৩ সালের এপ্রিল পর্যন্ত লীজ চুক্তি করে ব্রিকস ফিল্ডটি পরিচালনা করছেন তিনি।

মেয়াদ শেষ হবার আগেই তার বাবার মৃত্যু হলে তিনি ৩৪ একর ২৫ শতাংশ জমির ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত ১১ একর ৯৮ শতাংশ জমির মধ্যে ওই ব্রিকস ফিল্ডের ২ একর জমি মিলিয়ে বুঝ নেয়। সেখানে তিনি বিভিন্ন ভবন নির্মাণ করে এবং গাছ লাগিয়ে ব্যবসা প্রসার করেন। তার বিবাদী ভাই-বোন লোভের বশে ওই জমির উপর কু-নজর দেয়।

তারা তাকে না জানিয়ে একই আদালতে ২০১৭ সালের দিকে একটা মামলা দায়ের করেন। ২০১৭ সালের ২৭ আগস্ট তারা আদালত কে ভুল বুঝিয়ে একতরফা ভাবে ব্রিকস ফিল্ডের কার্যক্রমে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আদেশ করিয়ে নেয়। জুলফিকার জানার পর আদালতে কাগজপত্র দাখিল করলে তারা বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে সময়ে প্রার্থনা করে ২ বছর পর্যন্ত মামলা থামিয়ে রাখে।

সর্বশেষ গত ৪ আগস্ট আদালত দোতরফা শুনানি শেষে বিবাদীদের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আদেশ সরাসরি না মঞ্জুর করেন। দুই বছর যাবত তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় প্রায় ৩ কোটি টাকার ক্ষতি এবং ২ কোটি টাকার সুনাম নষ্ট হয়।

বিবাদী ভাই বোনদের নিকট ক্ষতিপূরণ দাবি করলে তারা অকথ্য ভাষায় গালি দিয়ে মারধর করার হুমকি দেয়। এতে আদালতের মাধ্যমে ৫ কোটি টাকা ক্ষতি পূরণ দাবি করে মামলাটি দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আলামিন মাতুব্বর মামলা আদেশের জন্য রেখে দেন বলে জানায় এডভোকেট ইব্রাহিম খলিল তালুকদার।