বাউফলে মাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা ?

নিজস্ব প্রতিবেদক মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

শফিকুল ইসলাম, বাউফলঃ পটুয়াখালীর বাউফলে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মৎস নিধন করার অভিযোগ করা হয়েছে প্রতিক্ষের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে উপজেলার আদাবাড়ীয়া ইউনিয়নের আতোষখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে লক্ষাধিক টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেন ভুক্তোভোগী ফারুক হাওলাদারের ভাই সবুজ হাওলাদার। এ ঘটনায় থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের ফারুক হাওলাদার বেশ কয়েক বছর ধরে পুকুরে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছেন। গত সোমবার রাতের যে কোন এক সময়ে ওই পুকুরে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। পরের দিন মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় জলিল হাওলাদার নামের প্রতিবেশী পুকুরের মাছ মৃত অবস্থায় ভাসতে দেখে ফারুক হাওলাদারের পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়।

ফারুক হাওলাদারের ভাই সবুজ হাওলাদার জানান, তাঁর সঙ্গে একই গ্রামের সেরালী চৌকিদারের দীর্ঘ দিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষেরই আদালতে একাধিক মামলা ও রয়েছে। প্রতিপক্ষ সেরালী চৌকিদার ও তার লোকজন ওই জমি দখলে নেয়ার জন্য এমন ঘটনা ঘটাতে পারে।

সেরালী চৌকিদার অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, ‘আদালতে তার দেয়া মামলায় সবুজ হাওলাদার, জালাল হাওলাদার, জাফর হাওলাদার, খোকন হাওলাদার গং দের সাজা হয়। গতকাল সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা জামিনে বের হয়ে আমার কবলাকৃত সম্পত্তিতে জোর করে মাছ চাষ এবং বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকী দেয়’।

এ ব্যাপারে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত (ওসি) খন্দোকার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।