বহু গুণে গুণান্বিত বেলায়েত বাবলু’র আজ ৪৩ তম জন্মদিন

বিএসএল ডেস্ক বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১০, ২০১৯

নামটি তার বেলায়েত হাসান বাবলু। যাকে সবাই বেলায়েত বাবলু অথবা বাবলু নামেই ডেকে থাকেন। একাধারে তিনি একজন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আবার জনগনের সেবকও। শহরের কাটপট্টি রোডের বাড়িতে জন্ম নেয়া সেই প্রিয় ব্যক্তিটির আজ জন্ম দিন।

স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রায় পাঁচ বছর পরে ১৯৭৬ সালের ১০ই অক্টোবর এক সম্ভ্রান্ত মুক্তিযোদ্ধা দম্পতির ঘর আলোকিত করে জন্ম নিয়েছিলেন তিনি। ব্যক্তি জীবনে এক সন্তানের জনক বেলায়েত বাবলু পার করেছেন ৪৩টি বছর। তার জন্মদিনে বিএসএল নিউজ পরিবারের পক্ষ থেকে রইলো বিনম্র শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা। এছাড়াও তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তার সহধর্মীনি ‘সুখপাখী’।

মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদান রাখা বীর যোদ্ধা খোকা মিয়া ও রেবা বেগম এর চার পুত্র সন্তানের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ পুত্র বেলায়েত বাবলু ফকিরবাড়ী রোডের এ আর এস এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক ও ব্রজমোহন বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহন করেছেন।

১৯৯৪ সালে এ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রথম বিভাগে এস এস সি উর্ত্তীন হন তিনি। এরপর সরকারি বরিশাল কলেজ থেকে বিএ উর্ত্তীন হন। সেখানে অধ্যায়নকালে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন বাবলু। এমনকি ২০০০ সালে কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ প্যানেল থেকে সহ- নাট্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক নির্বাচিত হন তিনি।

২০০১ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট বরিশালের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করা ছাড়াও সদস্যদের ভোটে পেশাদার সাংবাদিকদের সংগঠন বরিশাল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। বিভিন্ন সময় শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবের নির্বাচিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক, পাঠাগার সম্পাদক, ক্রীড়া সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে সাংবাদিক মাইনুল হাসান স্মৃতি সংসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বেলায়েত বাবলু।

কর্মজীবনে বেলায়েত বাবলুর রয়েছে নানা সফলতার গল্প। লেটার টাইপে প্রকাশিত দৈনিক শাহনামা পত্রিকায় ১৯৯৪ সালে হাতেখড়ি ছিলো বাবলুর। সে সময় শিক্ষানবীশ সাংবাদিক হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। গুরু ছিলেন মরহুম ওয়াজেদ আলী খান।

এরপর নাট্যজন সৈয়দ দুলাল সম্পাদিত আনন্দ লিখন পত্রিকায় কাজ করার সুযোগ হয় তার। সাংবাদিকতার জীবনে আধুনিক সাংবাদিকতার আইডল সাংবাদিক আকতার ফারুক শাহীন’র সহায়তায় আজকের বার্তা ও জাতীয় দৈনিক যুগান্তরে কাজ করার সুযোগ পান বেলায়েত বাবলু।

এছাড়া বরিশাল থেকে প্রকাশিত আজকের পরিবর্তন, দৈনিক মতবাদ, আজকের বরিশাল পত্রিকায় বার্তা সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন সুনামের সহিত। আজকাল পত্রিকায় খন্ডকালীন সহযেগী সম্পাদক, বিপ্লবী বাংলাদেশ ও দক্ষিনাঞ্চল পত্রিকায় যুগ্ম বার্তা সম্পাদক পদে কাজ করেছেন দীর্ঘ দিন। ব্যুরো প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জাতীয় দৈনিক সকালের খবর পত্রিকার।

সাংবাদিকতার বাইরে একজন ভালো সংগঠকও তিনি। দেখতে কালো হলেও সদা হাস্যউজ্জল এই মানুষটি নাট্য অঙ্গনেও খুব পরিচিত মুখ। তিনি বরিশালের নাট্য সয়গঠন প্রজন্ম নাট্যকেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন বহুবার। এ সংগঠনের ব্যানারে কমপক্ষে ১৪টি মঞ্চ নাটকে কাজ করার সুযোগ হয় তার। বরিশাল সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের প্রচার সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের ৫০ বছর পূূতির অনুষ্ঠানে গীতি আলেখ্য আলোর পথযাত্রীতে অংশ নেয়া ছিল বেলায়েত বাবলু’র সব থেকে বড় প্রাপ্তি। নিয়াজ মাহবুবের পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটক কালো মকমল ও গুড়া গাড়া এবং নাটক গল্পের ইলিশ, রুস্তুম কুস্তিগির এবং সুব্রত সঞ্জিবের অপ্রকাশিত সমাজ নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে বেশ প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।

বহু গুণে গুণান্বিত বেলায়েত বাবলু বর্তমানে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। যুগন্তর পত্রিকায় কর্মরত অবস্থায় সিটি কর্পোরেশনে চাকরি লাভ করেন তিনি। বর্তমানে তিনি বিএসএল নিউজ এর উপ-সম্পাদক পদে রয়েছেন। বিএসএল নিউজে তার লেখা বেশ কয়েকটি রম্য রচনা ও চলমান ঘটনা নিয়ে বিশেষ কলাম দেশব্যাপি আলোচিত হয়েছে।

যার মধ্যে অপ সাংবাদিকতা, মফস্বল সাংবাদিকতা, কপি-কাট নিউজ, আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীসহ বেশ কয়েকটি লেখা অন্যতম। তার লেখা প্রকাশিত হয়েছে একুশে টেলিভিশনের অনলাইন পোর্টাল এবং স্থানীয় দখিনের খবর পত্রিকার বিশেষ কলাম হিসেবে। সব মিলিয়ে জীবনের প্রায় শেষভাগে এসে স্ত্রী রোমানা বাবলু ও একমাত্র পুত্র নাফি হাসান শব্দকে নিয়ে বেশ ভালোই চলছে তার দিনকাল।

নিজের নয়, এখন একমাত্র সন্তানের ভবিস্যৎ ও তাকে মানুষের মত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাই বেলায়েত বাবলু’র প্রধান লক্ষ্য। তার এ লক্ষ্যে পৌছানোর অনুপ্রেরনা হলেন তারই সহধর্মীনি রোমানা বাবলু।