পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলার শিকার নার্সারী ব্যবসায়ীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক রবিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯

পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত নার্সারী ব্যবসায়ী আব্দুল খালেক আকন (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ’র মৃত্যু হয়েছে। রোববার (০৮ সেপ্টেম্বর) ভোরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর রাতে ঝালকাঠি জেলার কাঠালিয়া উপজেলার বলতলা গ্রামে প্রতিক্ষরা বৃদ্ধকে মারধর করে মুখে বিষ ঢেলে হত্যার চেষ্টা করে। এই ঘটনায় কাঠালিয়া থানায় একটি হত্যা চেষ্টা মামলা হয়। ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামী আনোয়ার ফরাজী নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহতের স্ত্রী নাসিমা বেগম জানান, ‘এইক গ্রামের রুস্তম ফরাজীর ছেলে সাইফুল ইসলাম ফরাজী বিগত এক মাস পূর্বে আব্দুল খালেক ফরাজীর কাছ থেকে বাকিতে ৬০ হাজার টাকার গাছের চারা ক্রয় করে। ওই টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে সাইফুল ও তার ভাইয়ের সাথে খালেকের ঝগড়া হয়।

এ ঘটনার পরে গত ১ সেপ্টেম্বর রাতে স্থানীয় দোগানো বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলো আব্দুল খালেক আকন। তিনি প্রতিপক্ষ সাইফুলদের বাড়ির সামনে দিয়ে যাবার সময় প্রতিপক্ষ সাইফুল, তার ভাই এনায়েত ফরাজী ও বাবা রুস্তম ফরাজী নার্সারী ব্যবসায়ী খালেক এর ওপর হামলা করে।

এসময় তারা খালেককে বেধড়ক মারধর ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে হত্যার উদ্দেশ্যে মুখে বিষ ঢেলে দেয়। পরে প্রতিপক্ষের সহযোগী আবুল ফরাজী নামের ব্যক্তি স্থানীয় ইউনুস হাওলাদারকে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করে ঘটনাস্থল থেকে কেটে পড়েন।

খবর পেয়ে বৃদ্ধ’র স্বজনরা ঘটনাস্থল হতে আব্দুল খালেক আকনকে উদ্ধার করে প্রথমে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরবর্তীতে ২ সেপ্টেম্বর তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় রোববার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

কাঠালিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম জানান, এই ঘটনায় আগেই হত্যা চেষ্টা মামলা হয়েছে। বৃদ্ধর মৃত্যুর পরে ওই মামলাটিই হত্যা মামলা হিসেবে গ্রহন হবে। এ মামলায় সাইফুল ইসলাম, তার ভাই এনায়েত ফরাজী, আনোয়ার ফরাজী ও বাবা রুস্তম ফরাজীকে আসামী করা হয়েছে। মামলার আসামী আনোয়ার ফরাজীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।