দখিণা আওয়ামী লীগের ১৩ নেতাকে শোকজ

নিজস্ব প্রতিবেদক মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

সাঈদ পান্থঃ গত উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী ও তাদের মদদদাতা বরিশালের ১৩ নেতাকে শোকজ করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। এ তালিকায় জেলা আওয়ামী লীগের নেতা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা রয়েছে। এমনকি উপজেলা নির্মাচনে জয়লাভ করা নেতাও রয়েছে। গত রোববার থেকে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এই শোকজ চিঠি পাঠানো হয়েছে। নেতাদের আগামী ৩ সম্পাহের মধ্যে শোকজের জবাব দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শোকজ প্রাপ্ত নেতারা হচ্ছেন বরিশালের হিজলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ঢালী। পটুয়াখালী সদরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম মৃধা, দুমকিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহজাহান সিকদার, মির্জাগঞ্জে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খান মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, দশমিনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এমএ বশার ডাবলু, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাখাওয়াত শওকত হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক হাজী আবু বক্কর সিদ্দিক।

ঝালকাঠি সদরে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ রাজ্জাক আলী সেলিম এবং সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান। রাজাপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মিলন মাহমুদ বাচ্চু, কাঁঠালিয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক গোলাম কিবরিয়া সিকদার, পিরোজপুর সদরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও ভোলার তজুমদ্দিনে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোশারফ হোসেন।

সূত্রে জানা গেছে, শোকজ চিঠিতে আওয়ামী লীগ থেকে ‘কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না’, তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে। জবাব সন্তোষজনক না হলে দলীয় পদসহ স্থায়ী বহিষ্কার হবেন অভিযুক্ত নেতারা। আগামী ৩ সম্পাহের মধ্যে এই শোকজ নোটিশের জবাব দিতে হবে।

এব্যাপারে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল বলেন, ‘এখনো কোন শোকজ নোটিশ পাওয়া যায়নি। এছাড়া বরিশাল মহানগরে কাউকে এই নোটিশ প্রদানের বিষয়টিও আমার জানা নেই। যদি কাউকে নোটিশ প্রদান করা হয়, তবে সাংগঠনিকভাবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবে। সংগঠনের আইন ভংগকারীদের কোন ছাড় দেয়া হবে না।

’ এ বিষয়ে বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. তালুকদার মো: ইউনুসের সাথে বার বার যোগাযোগ করেও তাদের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।