আজও রহস্যে ঘেরা চিত্রনায়ক সালমান শাহ‍’র মৃত্যু

বিএসএল ডেস্ক শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৯

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ’র ২৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ শুক্রবার (০৬ সেপ্টেম্বর)। মৃত্যুর ২২টি বছর কেটে গেলেও আজও তার মৃত্যুর রহস্য ভক্তদের কাছে রহস্যই থেকে গেছে। তাকে হত্যা নাকি, আত্মহত্যা করেছেন সেই প্রশ্নের উত্তর আজও খুঁজে বেড়াচ্ছেন সালমান ভক্তরা। শেষ পর্যন্ত এর উত্তর মিলবে কিনা তাও জানা নেই তাদের।

বাংলা চলচ্চিত্রের এক নক্ষত্রের নাম ছিল সালমান শাহ। যিনি হুট করে এসে বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকদের মন জয় করে নেয়। কিন্তু মাত্র চার বছরের মাথায় চলে যেতে হয় তাকে। অকালপ্রয়াত এই হাটথ্রব নায়কের মৃত্যু হয়। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটনের নিজ ফ্ল্যাটে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল সালমান শাহ’র মৃহদেহ।

ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করলেও সালমান শাহ ভক্তরা সেটা মেনে নিতে পারেনি। বিভিন্ন সময় অনেকেই দাবি করেছেন সালমান শাহকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। স্ত্রী সামিরার পরকিয়া প্রেমের জন্যই সালমান শাহকে প্রাণ দিতে হয়েছে বলে দাবি তার পরিবারের। এজন্য সামিরা ও আরো কয়েকজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলাও হয়। কিন্তু অদৃশ্য কারণে ওই মামলার অগ্রগতী গত ২২ বছরেও চোখে পড়েনি।

সালমানের মরদেহের পাশ থেকে যে সিগারেট পাওয়া যায় সেটি সালমান শাহ খেতেন না বলেও দাবি তার মা নীলা চৌধুরীর। অন্য ব্র্যান্ডের সিগারেট কে খেয়েছিল সেদিন সালমান শাহের ঘরে? ফ্ল্যাটের প্রতিবেশীরা জানিয়েছিলেন সেদিন ধস্তাধস্তির শব্দ শুনেছেন তারা। সালমান শাহকে দ্রুত হাসপাতালে না নেয়ার অভিযোগও উঠেছে। এমন অনেকগুলো বিষয়ই এখনো রহস্য ছড়িয়ে রেখেছে ঢাকাই চলচ্চিত্র অঙ্গনের এই একটি মৃত্যুকে ঘিরে।

কে ছিল সেদিন সালমান শাহর ঘরে? আত্মহত্যা করেননি, তবে কে হত্যা করেছেন সালমান শাহকে? বিভিন্ন সময় গুঞ্জন উঠেছে এক প্রভাশালী চলচ্চিত্র প্রযোজকের সঙ্গে গোপন সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সালমান শাহর স্ত্রী সামিরা। এদিকে শাবনূরের সঙ্গে সালমান শাহর গোপন প্রেমের কথাও শোনা গিয়েছিলো। এই চতুর্ভূজ প্রেমের জের ধরেই কি খুন হয়েছিলেন সালমান শাহ? না-কি আত্মহত্যাই করেছেন সবার প্রিয় এ নায়ক।

 

এক নজরে সালমান শাহ-

আসল নাম : চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইমন (সালমান শাহ)।
জন্ম : ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭১, রোববার।

মৃত্যু : ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬, শুক্রবার।
বাবা : কমর উদ্দিন চৌধুরী।
মা : নীলা চৌধুরী।
স্ত্রী : সামিরা।
প্রথম চলচ্চিত্র : কেয়ামত থেকে কেয়ামত।
শেষ ছবি : বুকের ভেতর আগুন।
প্রথম নায়িকা : মৌসুমী।
সর্বাধিক চলচ্চিত্রের নায়িকা : শাবনূর (১৪টি)।
মোট চলচ্চিত্র : ২৭টি।
ধারাবাহিক নাটক : পাথর সময়, ইতিকথা।
একক নাটক : আকাশ ছোঁয়া, দোয়েল, সব পাখি ঘরে ফেরে, সৈকতে সারস, নয়ন, স্বপ্নের পৃথিবী।