ছাত্রীর গোপনাঙ্গ থেকে জোঁক বের করলেন চিকিৎসক

নিজস্ব প্রতিবেদক সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯

দুই শিক্ষিকার নির্দেশে ডোবায় শাক তুলতে নেমে পঞ্চম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীর গোপনাঙ্গে প্রবেশ করা জোঁক বের করেছেন চিকিৎসক। পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর চিকিৎসক অস্ত্রপচারের মাধ্যমে গোপনাঙ্গের জোকটি অপসারন করেন।

এর আগে গত শনিবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার মানিকখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থী দুই শিক্ষিকার কথায় কলমি শাক তুলতে ডোবায় নামলে তার গোপনাঙ্গে জোক প্রবেশ করে।

খবর পেয়ে রোববার ঘটনাস্থল ও ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির।তিনি প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়ে তদন্ত করে একদিনের মধ্যে শিক্ষা বিভাগকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা জানান, মানিকখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা নাসিমা বেগম ও সেলিনা বেগম ওই শিক্ষার্থীকে শাক তুলতে ডোবায় নামতে বলেন। শিক্ষার্থী ডোবায় নেমে শাক তুলে দেন তাদের। শাক তোলার সময় ওই শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে একটি জোঁক প্রবেশ করে। পরে স্কুল শেষে মেয়েটি বাড়ি গেলে তার গোপনাঙ্গ থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ শুরু হয়।

তারা আরও বলেন, রক্তক্ষরণের কারণে ওই শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা দ্রুত তাকে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক তার গোপনাঙ্গ থেকে একটি জোঁক অপসারণ করেন। পরে একদিন হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা শেষে শিক্ষার্থীকে বাসায় নিয়ে যান।

পাথারঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন করিব বলেন, এ ঘটনায় একদিনের মধ্যে তদন্ত করে উপজেলা শিক্ষা অফিসকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তবে আজ সোমনার বেলা ১২টা পর্যন্ত তদন্ত প্রতিবেদন জমা হয়নি।